বেকারত্ব: মেহেজাবিন নেছা | কান্তারপল্লি ম্যাগাজিন




খুব মনোযোগ দিয়ে ফেসবুকিং করছি। তাও ঘণ্টাখানেক ধরে তো হবেই। বাসায় এসেছি গতকাল। বাসায় আসলে ফেসবুকিং করি দরজা লক করে। যাতে বাসার কারো বকা শোনা না লাগে। 
বাসায় আমি একটু বেশিই ভদ্র টাইপের মেয়ে। বাসার গেটে পা দেয়ার আগে আমার প্রথম কাজটা হয় মোবাইল সাইলেন্ট করা। কোনো ধরনের কোনো কলের শব্দ কারো কানে যাওয়া চলবে না। মোবাইলের ওপর পাশের জন কান্না করে মরে গেলেও আমি ভাজা মাছটি উল্টেও খেতে জানিনা টাইপের। শুধু যখন ফেসবুকিং এর জন্য মোবাইল টা হাতে নিই তখন একবার কল লিস্ট এ নতুন কেউ অ্যাড হয়েছে কিনা দেখি। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নো কল ভেসে আসে। 
একটা আশ্চর্যের ব্যাপার হলো আমার মোবাইলে যে এমনিতে কল আসেনা তা না। কিন্তু আমি বাসায় আসলে কেন যেন কল লিস্ট খালিই থেকে যায়। এটাকে প্লাস পয়েন্ট বলা যেতে পারে।

কথা প্রসঙ্গে আসি। আমি ফেসবুকিং করছি ঘণ্টাখানেক হলো। জানি দরজা লক করাই আছে। এর মাঝে হুট করে খকখক আওয়াজ। আব্বু রুমে! কিভাবে! দরজা লক করতে এভাবে ভুলে গেছি! তাও আবার দিন দুপুরে! চোখ বন্ধ করে একটু নিজেকে সামলে নিলাম। 
"আব্বু! কিছু বলবেন?"
আব্বু স্বাভাবিকভাবেই বললো "দেখতো প্রশাসনে নতুন কোনো জব সার্কুলার হইছে কিনা!"
যাক আব্বু আজ বকাবকি করবে না বুঝতে পেরেছি। স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললাম। কিন্তু আব্বু নিজেই তো চাকরির সব খবরাখবর রাখে। এখন আমাকে কেন নেটে দেখতে বলছে! এটাই কি পানিশমেন্ট!
আসার পর থেকেই বুঝতে পারছি বড় আপুকে নিয়ে আব্বু কতোটা টেন্সড। কথা বলতে আসলেই বড় আপুর চাকরির প্রসঙ্গটা মাস্ট থাকে। ওর মাস্টার্স কমপ্লিট হইছে তাও ছয় মাস হলো। রেজাল্ট বরাবরের মতোই ভালো। চেষ্টা করছে সরকারি চাকরির। এখন পর্যন্ত সেটা অধরা। 

সময়টাই এমন। বড্ড বেশি বেরসিক। সঠিক মেধার সঠিক মূল্যায়ন হতে কেমন জানি বেশি সময় লাগে এদেশে। আর দোষ হয় ভাগ্যের অথবা প্রশ্নবিদ্ধ হয় যোগ্যতা। 
এদেশে জ্ঞানী মানুষের কদর সেভাবে নেই বলেই সর্বোচ্চ মেধাগুলো পাচার হয় দেশের বাইরে। আর যেই মেধাগুলো তবুও টিকে থাকে সুযোগ অথবা দেশপ্রেমের দোহাই দিয়ে দিন শেষে একরাশ ক্লান্তি মুখে আর এক আকাশ স্বপ্ন বুকে নিয়ে চলতে থাকে স্রোতের প্রতিকূলে।

বেকারত্বের বোঝা মাথায় নিয়ে এই সময়টা কি কিছুদিন পরে পার করা লাগবে আমারও! প্রতিটা মধ্যবিত্তের স্বপ্নের মাঝে বেকারত্বের সূচ কিভাবে বিধে তার চাক্ষুষ প্রমাণ দেখতে পাই আব্বুর জ্বলজ্বল করে জ্বলতে থাকা দুচোখের রেটিনায়।।

কোন মন্তব্য নেই

Featured post

কবিতা: তুমি আসবে বলে | কবি: ফারাবী আক্তার

তুমি আসবে বলে ফারাবী আক্তার ৩০/৭/২০১৯ তুমি আসবে বলে! কপালে একটা টিপ পরেছি। কানে ইয়া বড় দুল; নাকে নোলক পরেছি। তুমি আসবে বলে! চোখে কাজল পরেছি।...

Blogger দ্বারা পরিচালিত.